Category Archives: Homepage blog

মধু ও মৌমাছি

♫‘মৌমাছি, মৌমাছি, কোথা যাও নাচি নাচি দাঁড়াও না একবার ভাই।
ওই ফুল ফুটে বনে, যাই মধু আহরণে, দাঁড়াবার সময় তো নাই…’♫

☼ ফুলে ফুলে ঘুরে ঘুরে মধু সংগ্রহ করা মৌমাছিদের চেনে না এমন মানুষ খুঁজে পাওয়া ভার। কিন্তু উত্তর আমেরিকায় একসময় কোনো মৌমাছি ছিল না। আদিবাসীরা মৌমাছিকে ‘সাদা মানুষের মাছি’ বলত; কারণ ঔপনিবেশিকরা প্রথম মৌমাছি আমদানি করেছিল।

ইতিহাস থেকে জানা যায়,

►মধু হল পৃথিবীতে একমাত্র খাদ্য যা কখনও পচে না।

►মৌমাছিরা ১০ থেকে ২০ মিলিয়ন বছর আগে থেকেই মধু সংগ্রহ করে আসছে।

►অনেকেরই আজানা যে ৫০০ গ্রাম মধু সংগ্রহ করতে মৌমাছির দরকার হয় ২ মিলিয়ন ফুল।

►ওই একই পরিমাণ মধু সংগ্রহ করতে মৌমাছির ৯০ হাজার কিলোমিটার পথ পাড়ি দিতে হয়।

►এরা প্রতি ঘণ্টায় প্রায় ৮ কিলোমিটার উড়তে পারে।

►শ্রমিক মৌমাছি গড়পরতায়তার সারা জীবনে অর্ধেক চা চামচের সমপরিমাণ মধু সংগ্রহ করতে পারে।

►একটা মৌচাকে গড়ে প্রায় ৬০ হাজার মৌমাছি থাকে।

►পুরো পৃথিবী একবার ঘুরে আসতে মৌমাছির জন্য ২ চা চামচ মধুই খাবার হিসেবে যথেষ্ট।

►মানুষ খুব সহজেই মধু হজমকরতে পারে।

সৌন্দর্য চর্চায় মধুর ব্যবহার

সৌন্দর্য চর্চার জন্য আমরা কতই কিছু না করে থাকি। কিন্তু সঠিক পদ্ধতি জানা থাকলে আপনি নিজে নিজেই যেকোন সৌন্দর্য সমস্যার সমাধান করতে পারবেন। যেমন মধু আপনার ত্বক সুন্দর করে তোলা থেকে শুরু করে আপনার ওজন কমানো পর্যন্ত অনেক কাজেই করে। আসুন জেনে নেই মধুর উপকারিতা সম্পর্কে।

প্রাকৃতিক ক্লিনজার:

মধু খুব ভালো প্রাকৃতিক ক্লিনজার হিসেবে কাজ করে। ত্বককে ভেতর থেকে ময়লা বের করে ও মরা কোষ দূর করে ত্বক স্বাস্থ্যোজ্জ্বল করে। মধু দিয়ে নিয়মিত মুখ পরিষ্কার করলে ত্বক হবে দাগহীন ও সুন্দর। এক চামচ মধু ও এক চামচ উপটান মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করে মুখে কিছুক্ষণ ম্যাসাজ করে ধুয়ে ফেলুন।

ত্বকে পুষ্টি জুগিয়ে স্বাস্থ্যোজ্জ্বল:

দুই চামচ মধু, আধা চামচ চিনি এবং কয়েক ফোঁটা লেবুর রস মিশিয়ে স্ক্র্যাব বানিয়ে নিতে পারেন। এই স্ক্র্যাব ২ থেকে ৩ মিনিট হালকাভাবে মুখে ম্যাসাজ করে ধুয়ে ফেলুন। চিনি খুব ভালো এক্সফলিয়েটিং এজেন্ট হিসেবে কাজ করে। লেবু ত্বকের দাগ দূর করে এবং মধু ত্বকে পুষ্টি জুগিয়ে নরম ও স্বাস্থ্যোজ্জ্বল করে তোলে।

ময়েশ্চারাইজার হিসেবে:

ময়েশ্চারাইজার হিসেবে মধু কার্যকর। শুষ্ক ত্বকে মধু লাগিয়ে ১৫ মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলুন। ত্বক নরম ও মসৃণ হবে।

Honey-1kg

বিভিন্ন উপকারী উপাদান:

মধুতে থাকা বিভিন্ন উপকারী উপাদান ত্বকের কোষ পুনর্গঠনে সাহায্য করে, ত্বক টানটান রাখে। তাই প্রতিদিন এক চামচ মধু খাওয়া ভালো।

মুখের দাগ দূর করতে:

মুখের দাগ দূর করতে মধু, আমন্ড অয়েল, গুঁড়ো দুধ এবং লেবুর রস পরিমাণমতো মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করে মুখে লাগান। ১৫ মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলুন। ব্রণ বা রোদে পোড়া দাগ দূর করতে কার্যকর।

লিপবাম:

লিপবাম হিসেবেও ব্যবহার করতে পারেন মধু। এক চামচ আমন্ড অয়েল এবং এক চামচ মধু মিশিয়ে রেখে দিন। ঠোঁট ফাটা রোধ করবে এবং সতেজতা ঠিক থাকবে।

কেন আপনি মধু খাবেন ?

প্রতিদিন এক চামচ মধু রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি, নানা রোগের উপসমসহ জীবনীশক্তি বাড়িয়ে দেবে। নিয়মিত মধু সেবন করলে নানাবিধ উপকার পাওয়া যায়।

১. হাজারো গুণে ভরা মধুতে গুকোজ ও ফ্রুকটোজ আছে যা শরীরে শক্তি যোগায়। এর অন্যান্য উপাদান শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়।

২. প্রতিদিন সকালে এক চামচ মধু খেলে ঠান্ডা লাগা, কফ, কাশি ইত্যাদি সমস্যা কমে যায়।

৩. মন ভালো করতে প্রতিদিন হালকা গরম পানির সাথে মধু ও লেবুর রস মিশিয়ে খান। সঙ্গে একটু দারুচিনির গুঁড়াও ছিটিয়ে নিতে পারেন।

৪. প্রতিদিন সকালে খালি পেটে হালকা গরম পানিতে লেবুর রস ও মধু মিশিয়ে খেলে ওজন কমে যায় কিছুদিনের মধ্যেই। এছাড়াও এভাবে প্রতিদিন খেলে লিভার পরিষ্কার থাকে, শরীরের বিষাক্ত উপাদান গুলো বের হয়ে যায় এবং শরীরের মেদ গলে বের হয়ে যায়।

৫. মধুর সাথে দারুচিনির গুঁড়ো মিশিয়ে খেলে তা রক্তনালীর সমস্যা দূর করে এবং রক্তের খারাপ কোলেস্টেরলের পরিমাণ ১০% পর্যন্ত কমিয়ে দেয়।

৬. মধু ও দারুচিনির মিশ্রণ নিয়মিত খেলে হার্ট অ্যাটাকের ঝুকি কমে এবং যারা ইতিমধ্যেই একবার হার্ট অ্যাটাক করেছেন তাদের দ্বিতীয়বার অ্যাটাকের ঝুকি কমে যায়।

৭. হজমের সমস্যা থাকলে প্রতিদিন সকালে মধু খাওয়ার অভ্যাস করুন। প্রতিবার ভারী খাবারের আগে এক চামচ মধু খেয়ে নিন। বিশেষ করে সকালে খালি পেটে এক চামচ মধু খান।

৮. যারা সারাক্ষন দূর্বলতায় ভুগছেন তারা প্রতিদিন সকালে এক চামচ মধু খেয়ে নিন এবং সারা দিন সবল থাকুন।

৯. সকালে ত্বকে মধু লাগিয়ে ৩০ মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলুন। এতে মধুর বেশ কিছু উপাদান ত্বক শুষে নেয়। ফলে ত্বক মসৃণ ও সুন্দর হয়।

১০. ত্বকে নিয়মিত মধু ব্যবহার করলে ত্বকের দাগও চলে যায়।